Archive for মার্চ, 2018

মার্চ 19, 2018

জামায়াত নেতার বিরুদ্ধে স্ত্রীর যৌতুক ও হত্যা চেষ্টার মামলা

জামায়াতে ইসলামীর সাবেক নায়েবে আমির ও রাজশাহী মহানগর জামায়াতের সাবেক আমির আতাউর রহমানের বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টার মামলা হয়েছে। তার দ্বিতীয় স্ত্রী রাশেদা বেগম ইতিপূর্বে রাজশাহীর মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে হাজির হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

জানা গেছে এর আগে আতাউরের বিরুদ্ধে হওয়া একটি মামলা আমলে নিয়ে আসামির বিরুদ্ধে সমন জারি করা হয়েছিল।আদালতে শুনানি শেষে আদালতের বিচারক মাহবুবুর রহমান গত ৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আসামি আতাউর রহমানকে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করলেও সে পালিয়ে যায় ।

আতাউর রহমান বর্তমানে জামায়াতের কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদের সদস্য হিসেবে আছেন।

আইনজীবী মোমিনুল ইসলাম বাবু বলেন, মামলায় আসামি আতাউর রহমানের বিরুদ্ধে পাঁচ লাখ টাকা যৌতুকের দাবির অভিযোগ আনা হয়েছে। আতাউর রহমানের দ্বিতীয় স্ত্রী রাশেদা বেগম বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেছেন। এই মামলা তুলতে রাশেদাকে হুমকি দেয়ার পর এবার হত্যার চেষ্টা করে।

আতাউরের দ্বিতীয় স্ত্রী রাশেদা অভিযোগ করেন, ২০১৬ সালের ১১ এপ্রিল আতাউর রহমানের সঙ্গে দুই লাখ টাকা দেনমোহর ধার্য করে তাদের বিয়ে হয়। পরে দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতির পরিবর্তন হলে তিনি গোপন অবস্থা থেকে প্রকাশ্যে আসেন। এ সময় তাকে স্ত্রী হিসেবে অস্বীকার করেন আতাউর। পরে কাবিননামা নিয়ে বিভিন্নস্থানে দেন-দরবারও করেন। কিন্তু উল্টো তাকে ভয়ভীতি দেখানো হয়। একপর্যায়ে তার সঙ্গে ঘর-সংসার করতে হলে পাঁচ লাখ টাকা যৌতুক দিতে হবে বলে দাবি করেন আতাউর। কিন্তু তা দিতে না পারায় তাকে স্বীকৃতি দেননি। সর্বশেষ গত ২ জুন ভাইদেরকে নিয়ে রাশেদা বেগম তার স্বামীর বাড়িতে যান। কিন্তু এরপরও জামায়ত নেতা আতাউর প্রভাব দেখিয়ে তাকে ঘরে তুলে নেননি। উল্টো পাঁচ লাখ টাকা যৌতুক না দিয়ে স্ত্রীর অধিকার চাইলে তার ক্ষতি হবে বলে ভয় দেখান। এর প্রেক্ষিতে তিনি মামলা করেছিলেন।  এবার দলবল নিয়ে তার উপর আক্রমণ করলে অন্যের বাড়িতে লুকিয়ে থেকে রক্ষা পান।

এদিকে এ মামলার ব্যাপারে আতাউর রহমানের সঙ্গে মোবাইলে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

জানা গেছে, গত বছরের ১১ এপ্রিল তিনি ইসলামী ব্যাংক মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের লক্ষ্মীপুর শাখায় কর্মরত আয়া রাশেদা বেগমকে গোপনে বিয়ে করেন জামায়াতের সাবেক আমির আতাউর। কিন্তু স্ত্রীর স্বীকৃতি না পেয়ে বিষয়টি ফাঁস করে দেন ওই আয়া। বিষয়টি ইসলামী ব্যাংক মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও জামায়াতের নেতাদেরকে জানান রাশেদা বেগম। নগরীর রাজপাড়া থানার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের বিবাহ রেজিস্ট্রার ও কাজী আবদুর সাত্তারের কাছে দুই লাখ টাকা দেনমোহরে তাকে বিয়ে (কাবিননামা নম্বর ০৬/২০১৬) করেন আতাউর রহমান।

কিন্তু বিয়ের এক বছর পার হয়ে গেলেও তাকে স্ত্রীর মর্যাদা দেওয়া হয়নি।

মার্চ 17, 2018

জামাতি শ্বশুরের কামড়ে ক্ষতবিক্ষত বধূ

টাঙ্গাইলে শ্বশুরের কামড়ে ক্ষত-বিক্ষত নববধূর এখন ঠাঁই হয়েছে হাসপাতালের বিছানায়। গত মঙ্গলবার গোপালপুর উপজেলায় ন্যক্কারজনক এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, জামায়াত নেতা অধ্যক্ষ ড. ফায়জুল আমীন সরকার তিন মাস আগে ছেলেকে বিয়ে করিয়ে ২০ দিন আগে নববধূকে বাড়িতে নিয়ে আসেন। ছেলে পুনরায় কর্মক্ষেত্রে চলে যাওয়ার সুযোগে গত মঙ্গলবার বিকেলে ঘরে একা পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় শ্বশুর। ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে পুত্রবধূর শরীরের বিভিন্ন স্থানে কামড়ে ক্ষত-বিক্ষত করে। পরে নববধূর আর্তচিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় গতকাল গোপালপুর থানায় একটি মামলা হয়েছে।

নির্যাতনের শিকার নববধূ (২৫) জানান, তাঁর বাড়ি ভোলার লালমোহন উপজলায়। ফয়জুল আমিনের ছেলে রুহুল আমীনের সঙ্গে তাঁর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত ডিসেম্বরে তাঁরা বিয়ে করেন। কিছুদিন পর শ্বশুরের তাগিদে তাঁর স্বামী আবারও কর্মক্ষেত্র গাজীপুরে চলে যান। এই সুযোগে শ্বশুর অধ্যক্ষ ড. ফায়জুল আমীন (৫৫) তাঁকে অনৈতিক সম্পর্কের প্রস্তাব দেয়। রাজি না হওয়ায় তাঁর ওপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালাতে শুরু করে শ্বশুর। স্বামীকে এ ঘটনা জানালে তিনি তা বিশ্বাস করেননি। এ অবস্থায় মুখবুঝে সব নির্যাতন সহ্য করতে থাকেন নববধূ।

গতকাল বিকেলে ঘুমন্ত অবস্থায় শ্বশুর তাঁর ঘরে গিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। প্রথমে তিনি শ্বশুরের হাত-পা ধরে সম্ভ্রম বাঁচানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু তা না শুনে শ্বশুর তাঁর মুখমণ্ডল, গলা ও শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে কামড়ে ক্ষত-বিক্ষত করে। সম্ভ্রম বাঁচাতে চিৎকার দিলে প্রতিবেশীরা এসে তাঁকে উদ্ধার করে।

মার্চ 16, 2018

জামায়াত নেতার বিরুদ্ধে ভাগনি ও গৃহপরিচালিকা ধর্ষণ মামলা

ফেনী প্রতিনিধি : ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার মুন্সী আবদুল কাদের হিফজুল ক্যাডেট মাদ্রাসার অধ্যক্ষ জামায়েত নেতা মোহাম্মদ আলীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার মামলা হয়েছে। সোমবার বিকেলে ওই কিশোরীর মামা দাগনভূঞা থানায় মামলাটি করেন।

মোহাম্মদ আলী দাগনভূঞা পৌরসভার চার নং ওয়ার্ড জামায়াতের সেক্রেটারি ও জগৎপুর আল ফালাহ জামে মসজিদের ইমাম।

ওই কিশোরীর মামা জানান, আট থেকে নয় মাসে আগে তার ভাগনিকে (১৬) পড়ালেখা ও গৃহপরিচালিকার কাজ করা জন্য দাগনভূঞায় মুন্সী আবদুল কাদের হিফজুল কুরআন ক্যাডেট মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ আলীর বাড়িতে রেখে যান। অধ্যক্ষের বাড়িতে কাজকর্মের পাশাপাশি তার ভাগনি বাড়ি সংলগ্ন ওই মাদ্রাসায় লেখাপড়া করতো। মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী বাড়ির বাইরে গেলে তিনি শারীরিক নির্যাতন করতো।

সম্প্রতি তার ভাগনি বিষয়টি জানালে তিনি সোমবার সকালে মাদ্রাসায় যান। এ সময় মাদ্রাসার অধ্যক্ষ তার সঙ্গে অশোভন আচারণ করে বের করে দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে। বিকেলে তিনি ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামলা দায়ের করেন।

দাগনভূঞা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আনোয়ারুল আজিম জানান,  কিশোরীর অভিভাবকের অভিযোগের পেক্ষিতে ধর্ষণ চেষ্টার মামলা হয়েছে। আসামিকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

মার্চ 15, 2018

কবিরাজের যৌণশক্তি বর্ধক হালুয়া খেয়ে ২ জামায়াত নেতা নিহত, অসুস্থ বিএনপির সহদপ্তর সম্পাদক

21st august

সাভারের আশুলিয়ায় গোপন শক্তি বাড়াতে কবিরাজের হালুয়া খেয়ে দুই যুবকের মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর অসুস্থ হয়েছেন আরও দুজন। নিহতরা হলেন সাবেক শিবির নেতা মোতালেব ও জামায়াতকর্মী জিল্লু রহমান।
অসুস্থ তিন জনের মধ্যে শামীমুর রহমান শামীম বিএনপির সহদফতর সম্পাদক এবং ফরিদউদ্দিন ২০ দলীয় জোট ও এনএনপির কেন্দ্রীয় নেতা। এছাড়া শাহীবাগ মহল্লার অধিবাসী মোকলেছুর রহমানের রাজনৈতিক পরিচয় জানা যায়নি।

বুধবার দিবাগত রাতে আশুলিয়ার ভাদাইল এলাকায় একটি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। অসুস্থরা সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আশুলিয়া থানার এসআই শাহিনুর ইসলাম জানান, দিবাগত রাতে করিবাজের তৈরি গোপন শক্তিবর্ধক হালুয়া খান ওই দুই জন। এর পর তাদের বমি শুরু করে একে একে অসুস্থ হয়ে পড়েন। প্রতিবেশীরা তাদের উদ্ধার করে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। বৃহস্পতিবার ভোরে জিল্লু ও মোতালেবের মৃত্যু হলে পরে সেখানে জানা যায় অপর তিন জন একই হালুয়া খেয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক নজরুল ইসলাম জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে- যৌনশক্তি বর্ধক হালুয়ার বিষক্রিয়ায় এমন ঘটেছে।

অসুস্থ মোকলেছুর রহমান জানান, বিএনপি নেতা শামীম সাংসারিক অশান্তির কথা জানালে গত বুধবার সাবেক শিবির নেতা মোতালেব তাকে কবিরাজ ফরিদ শাহ চন্দ্রপুরীর ঔষধ খাওয়ার পরামর্শ দেন। এ সময় জিল্লুর তার কাছে থাকা হালুয়া দেখান।
শামীম কবিরাজের হেমায়েতপুরের চেম্বারে যেতে চাইলে ফরিদ উদ্দিন ও মোখলেছও তার সাথে যাওয়ার ইচ্ছার কথা জানান।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কবিরাজকে গ্রেফতারের সংবাদ জানা যায়নি। নিহত বা আহতদের পক্ষ থেকে কোন মামলা না হলেও পুলিশ বাদী হয়ে একটি মামলা করেছে।

মার্চ 15, 2018

বলৎকারের অভিযোগ করায় ছাত্র নির্যাতন

chil.jpgরাজধানীর রামপুরায় আবু রায়হান নামে ১১ বছরের এক বালককে নির্মমভাবে প্রহার করেছে শিক্ষক মুফতি আবুল কালাম আজাদ বাশার। পড়া মুখস্ত না মারার কথা বলা হলেও কিছুদিন আগে মাওলানা বাশার কর্তৃক যৌন নির্যাতনের অভিযোগ জানিয়েছিল আবু রায়হান।

জানা গেছে, আইডিয়াল স্কুলের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র রায়হানের আরবী শিক্ষক হিসেবে আবুল কালাম আজাদ (বাশার) নামে এক মাদ্রাসা শিক্ষককে ঠিক করেছিল তার পরিবার। কিছুদিন পর তার কাছে পড়তে অনীহা প্রকাশ করে। এছাড়া দুজন সহপাঠির কাছে বাশার কর্তৃক বলৎকারের কথা জানিয়েছিল রায়হান।

গত সোমবার মুফতি বাশার রায়হানকে বেদম প্রহার শুরু করে। তার মা এ ব্যাপারে জিজ্ঞেস করলে বাশার পড়া মুখস্ত না করার কথা বলেন। ঘটনার পর রাতে অসুস্থ হয়ে পড়লে রায়হানকে মগবাজারের রাশমনো হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
রায়হানের শরীরের বিভিন্ন অংশে কামড়ের দাগ রয়েছে বলে জানা গেছে।

আবু রায়হানের ভাই নাজিম উদ্দিন জানান, বাশার ও তাদের গ্রামের বাড়ি চোদ্দগ্রামের একই ইউনিয়নে। বাশারের পিতা আবদুল হাকিমের সাথে সম্পর্কের সুবাদে মদিনাতুল উলুম মাদ্রাসার শিক্ষক আবুল কালাম আজাদকে রাখা হয়েছিল।
প্রহারের ঘটনার পর কোন মামলা না হলেও বাশারকে বিদায় করে দেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে জিজ্ঞেস করা হলে মাওলানা হাফিজুর রহমান সিদ্দিক বলেন, এ ধরণের লোককে শিক্ষক হিসেবে মাদ্রাসায় রাখাও ছাত্রদের জন্য নিরাপদ নয়।

মার্চ 14, 2018

“যাবজ্জীবন রাষ্ট্রপতি” শি জিনপিংকে তারেক রহমানের অভিনন্দন

বাংলাদেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় হস্তক্ষেপ কামনা

চীনের প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতার মেয়াদ দুই দফার পরিবর্তে আজীবনের জন্য নিযুক্ত হওয়ায় শি জিনপিংকে অভিনন্দন জানিয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান। গত ১০ মার্চ তারেক রহমানের পক্ষে রুহুল কবীর রিজভী স্বাক্ষরিত অভিনন্দন বার্তাটি চীন দূতাবাসের সম্প্রতি দায়িত্বপ্রাপ্ত রাষ্ট্রদূত ঝাঙ জুও’র কাছে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

অভিনন্দন বার্তায় তারেক রহমান জিনপিংকে “যাবজ্জীবন বহাল রাখায়” সাফল্য কামনা করে বাংলাদেশের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় হস্তক্ষেপ করার আহবান জানিয়েছেন।

চীনকে বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু হিসেবে উল্লেখ করে জিনপিং যে পদ্ধতিতে ক্ষমতায় বহাল রয়েছেন সেটিকে বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় জিয়াউর রহমানের উদ্ভাবন বলে দাবি করেন।
তিনি আরও বলেন, “দুই বারের বেশি রাষ্ট্রপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন না করার যে অগণতান্ত্রিক রীতি প্রচলিত ছিল তা রহিত করায় গণতন্ত্রকামী মানুষের জন্য এক উজ্জল দৃষ্টান্ত স্থাপিত হয়েছে।”

বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে চীনের অবদান স্মরণ করে তারেক রহমান দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে ভূমিকা রাখার আহবান জানান।
বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে “গণতন্ত্রের মা” হিসেবে উল্লেখ করে বিবৃতিতে বলেন, একদলীয় স্বৈরাচারী সরকারের হাত থেকে মুক্তি পেতে দেশের মজলুম জনতা ব্যাকুলভাবে অপেক্ষা করছে। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, শুধুমাত্র চীনই পারে, বর্তমানের অন্ধকার ও বিপজ্জনক অবস্থা থেকে বাংলাদেশকে আলোর ধারায় ফিরিয়ে আনতে।”

"যাবজ্জীবন রাষ্ট্রপতি" শি জিনপিংকে তারেক রহমানের অভিনন্দন

“যাবজ্জীবন রাষ্ট্রপতি” শি জিনপিংকে তারেক রহমানের অভিনন্দন